হাওড়া-উত্তর ২৪ পরগনার করোনা পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ ! ১৪ দিন সময় দিলেন মমতা

5
340

হাওড়া-উত্তর ২৪ পরগনার করোনা পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ ! ১৪ দিন সময় দিলেন মমতা

BAHRS GLOBAL NEWS, 17 APR 2020
তীর্থঙ্কর মুখার্জি, কলকাতা : পুলিশকে কড়া হতে নির্দেশ দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বাংলার মুখ্যমন্ত্রী শুক্রবার জেলাশাসক, পুলিশ কমিশনার ও সুপারদের সঙ্গে বৈঠকে জানালেন, প্রয়োজনে পুলিশ আরও কঠোর পদক্ষেপ নিক। কিন্তু কোনও কারণেই লকডাউনের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করা যাবে না। আর অমান্য করলে কঠোর হোক পুলিশ। নির্দেশ দিলেন খোদ পুলিশমন্ত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।
মমতার সাফ কথা লকডাউনে কেউ কারণ ছাড়া বাইরে বের হবেন না। বাইরে যেন ভিড় না দেখি। ভিড় দেখলে রেয়াত করা হবে না। সংক্রমণ ঠেকাতেই হবে, এটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আর এই সংক্রমণ ঠেকাতে না পারলে গোষ্ঠী সংক্রমণের সম্ভাবনা আছে। একবার গোষ্ঠী সংক্রমণ হয়ে গেলে তা ঠেকানো অসম্ভব হয়ে যাবে।
মুখ্যমন্ত্রী পুলিশকে নির্দেশ দেন, হাওড়ার পরিস্থিতি খুবই স্পর্শকাতর। হাওড়াতে খুব গুরুত্ব সহকারে দেখতে হবে। মমতা বলেন, প্রয়োজনে বাজারে সশস্ত্র পুলিশ প্রহরা থাকবে। কোনওরকম বিধিভঙ্গ করা যাবে না। বাজারে ভিড় করা যাবে না। পাঁচ জনের বেশি এক জায়গায় থাকা যাবে না। তাঁদের মধ্যেও ন্যূনতম দূরত্ব বজায় রাখতে হবে।
মমতা বলেন, ১৪ দিনের মধ্যে হাওড়াকে গ্রিন জোনে ফেরাতে হবে। সেই লক্ষ্য নিয়ে সবাই কাজ করুন। নজর দিতে হবে উত্তর ২৪ পরগনার দিকেও। ১৪ দিনের মধ্যে উত্তর ২৪ পরগনাকেও অরেঞ্জ জোনে নিয়ে আসতে হবে। প্রয়োজনে দিনরাত কাজ করতে হবে। সীমানা দিয়ে কাউকে ঢুকতে দেওয়া যাবে না। যুদ্ধকালীন তৎপরতায় তা করুন।
মুখ্যমন্ত্রীর কথায়, কয়েকটি জেলায় সংক্রমণ হয়েছে ঠিকই, আবার বেশ কিছু জেলায় একেবারেই সংক্রমণ নেই। ২৩টি জেলার মধ্যে ১০টি জেলায় কোনও সংক্রমণ নেই। আরও কয়েকটি জেলায় দু-চার জন করে আক্রান্ত হয়েছেন। এখনও হাতের বাইরে যায়নি পরিস্থিতি। তাই প্রশাসনকে তিনি কড়া হাতে দমন করতে বলেন করোনা সংক্রমণকে।

5 COMMENTS

  1. Nicce post. I wwas checking continuously this blog and I’m impressed!
    Very useful information specially the las paet :
    ) I care for ssuch info a lot. I was looking for this particular information for a long time.
    Thank youu and best of luck.

  2. Дальше немного подробней рассмотрим, как работать с платформой, потому как здесь имеется набор особенностей, которые требуется принимать во внимание. Поэтому этапами рассмотрим момент работы с платформой, приобретение изделий и их реализацию. Вне зависимости от того, зачем вы зашли на hydra onion, интернет-сайт затребует регистрации для проведения операций.

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here