মোদীকে চিঠি লিখে বিজেপি ছাড়ার সিদ্ধান্ত জয়ের ! তৃণমূলে যোগদান কী সময়ের অপেক্ষা ?

0
563

বিকাশ সিং, কলকাতা : বিধানসভা ভোটে বড়সড় ধাক্কা বঙ্গ বিজেপির। মুখ থুবড়ে পড়েছেন দিলীপ-শুভেন্দুর জোট। আর এরপর থেকেই বিদ্রোহ দলের মধ্যে। প্রশ্ন উঠেছে নেতৃত্ব নিয়ে। বাংলায় কোনও নেতা নেই বলেও প্রশ্ন তুলেছেন একাধিক বঙ্গ নেতা। শুধু তাই নয়, ধর্মের নামে রাজনীতি মানুষ মেনে নেয়নি বলেও প্রশ্ন উঠতে শুরু করে।

এই অবস্থায় চরম অস্বস্তিতে পড়তে হয়েছে বঙ্গ বিজেপিকে। এখানেই শেষ নয়, ভোটের পর এই মুহূর্তে বিজেপির কাছে বড় চ্যালেঞ্জ দলে ভাঙন ঠেকানো। একের পর এক বিজেপি বিধায়ক এখন তৃণমূলমুখী।আর এই অবস্থায় ফের একবার অস্বস্তি বাড়ালেন বিজেপি নেতা জয় বন্দ্যোপাধ্যায়।

বিধানসভা ভোটে বিজেপি মুখ থুবড়ে পড়তেই বিদ্রোহের সুর চড়িয়েছিলেন জয় বন্দ্যোপাধ্যায়। শুধু তাই নয়, ভবানীপুর সহ ছয় কেন্দ্রের উপ নির্বাচনেও হারতে হয় বিজেপিকে। এমনকি সদ্য শেষ হওয়া চার কেন্দ্রের উপনির্বাচনেও একেবারে জামান্ত জব্দ পর্যন্ত হয় বিজেপি নেতাদের। রাজ্যের প্রধান বিরোধী শক্তি হওয়ার পরেই প্রার্থীদের এই হালের পরেই প্রশ্ন তুলেছেন জয়। এবার সরাসরি দল ছাড়ার সিদ্ধান্ত। একেবারে মোদীকে সরাসরি চিঠি লিখে দল ছাড়ার সিদ্ধান্ত অভিমানী বিজেপি নেতার। জয় জানিয়েছেন, খুব শিগগিরই বিজেপি ছাড়বেন। আর এই সিদ্ধান্তের কথাই মোদীকে জানালেন বলে জানিয়ছেন তিনি।

ভবানীপুরে প্রিয়ঙ্কা টিবরেওয়ালকে প্রার্থী করা নিয়ে ক্ষুব্ধ হয়েছিলেন জয় বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেছিলেন, এরাজ্যে বিজেপিকে আগে বাঙালি হয়ে উঠতে হবে। বাংলায় মানুষের মন জয় করতে গেলে বাঙালি প্রার্থী দিতে হবে। বিধানসভা ভোটের মতোই ভুল বিজেপি উপনির্বাচনেও করছে বলে মন্তব্য করেছিলেন তিনি। পাশাপাশি বলেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ভবানীপুর থেকে ৫০ হাজারের বেশি ভোটে জয় পাবেন। আর হয়েছিলও তাই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here