ভারতে থাকেন ৫ ‘বাইডেন’! মোদীর কথা শুনে হাসি চাপতে পারলেন না মিস্টার প্রেসিডেন্ট

0
610

পিঙ্কি শর্মা, নয়াদিল্লি : গত বছর মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসাবে ক্ষমতায় আসেন জো বাইডেন। অতিমারীর আবহে মোদীর বিদেশ সফর হয়নি তেমন। তাই নয়া প্রেসিডেন্টের সঙ্গে ভারতের প্রধানমন্ত্রীর সমীকরণ কেমন হবে তা স্পষ্ট ছিল না।

যদিও এর মাঝে বেশ কয়েকবার ফোনে কথা হয়েছিল মোদী-বাইডেনের। কিন্তু এবার মুখোমুখি দেখা হল মোদী-বাইডেনের। আর প্রথম সাক্ষাতেই খোস মেজাজে দেখা গেল দুই রাষ্ট্রনেতাকে। হোয়াইট হাউস সূত্রে খবর। একাধিক গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে আলোচনা হলেও মোদী-বাইডেনের বৈঠক নেহাত গুরু-গম্ভীর ছিল না।

আলোচনার ফাঁকেই মজাও করলেন বাইডেন। বৈঠকে স্ক্রিপটের বাইরে বেরিয়ে হালকা মেজাজে মাতলেন বাইডেন। বাইডেনের কথাতে হাসতে দেখা গেল মোদীকে। এমনকি পাল্টা মোদীর বক্তব্যে হাত চাপড়ে হাসতে দেখা যায় মিস্টার প্রেসিডেন্টকেও।

শোনা যায়, ভারতে বসবাস করেন এমন পাঁচ ব্যক্তির পদবি বাইডেন। এদিন মোদীর সামনে সেই গল্প শুরু করেন বাইডেন। আর তা শুনে হেসে ফেলেন মোদী। হালকা মেজাজে তিনিও উত্তর দিতে থাকেন। জানান, তাঁর এই বক্তব্য জানার পরেই খোঁজ নেওয়া হয়। কিন্তু পাওয়া যায়নি। আর তা শুনে আরও হাসেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।

এমনকি বিশ্বের সবথেকে শক্তিধর দেশগুলির মধ্যে একটি দেশের রাষ্ট্রপ্রধান তিনি। কিন্তু মোদীর বক্তব্য শোনার পর রীতিমত হাত চাপড়ে হাসতে দেখা যায় বাইডেনকে। অন্যদিকে আমেরিকার আসার সময়ে প্রেসিডেন্টের জন্যে জেনোলজি পেপার নিয়ে এসেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। বৈঠক শেষে জানান তিনি।

২০১৩ সালে মুম্বই এসেছিলেন জো বাইডেন। তখন এক সভাতে দর্শকদের উদ্দেশ্যে বলেছিলেন, মুম্বইতে তাঁর দূর সম্পর্কের আত্মীয় বাস করে। বছর দুয়েক পর ওয়াশিংটনে এক অনুষ্ঠানে বাইডেনের সেই কথার ব্যাখ্যা দিয়েছিলেন। তিনি জানিয়েছিলেন, পাঁচজন বাইডেন বাস করেন ভারতে।

উল্লেখ্য, এদিন প্রায় ১৫-২০ মিনিটের বৈঠক হয় বাইডেন এবং প্রধানমন্ত্রীর মধ্যে। এরপর সাংবাদিক যৌথ সাংবাদিক বৈঠক করেন দুই দেশের রাষ্ট্রপ্রধান। সেখানে বাইডেন বলেন, ভারত এবং আমেরিকার মধ্যে সম্পর্কের বীজ অনেকদিন আগেই বপন হয়েছ।

শুধুব তাই নয়, ভারত এবং আমেরিকার এই সম্পর্ক একাধিক সমস্যার সমাধান করতে পারবে বলেও দাবি মিস্টার প্রেসিডেন্টের। শুধু তাই নয়, একাধিক গ্লোবাল চ্যালেঞ্জেরও সমাধান তাঁরা করতে পারবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here