বিশ্ব দাবা চ্যাম্পিয়নশিপের খেতাব নিজের দখলেই রাখলেন কার্লসেন !

0
220

অমিত শর্মা, নয়াদিল্লি : বিশ্ব দাবা চ্যাম্পিয়নশিপের মঞ্চে ফের মস্তিস্কের দাপট দেখালেন ম্যাগনাস কার্লসেন। তিনটি গেম বাকি থাকতেই প্রতিপক্ষ ইয়ান নেপমনিয়াতচি’কে হেলার হারিয়ে পঞ্চমবার বিশ্ব চ্যাম্পিয়নের খেতাব অর্জন করলেন কার্লসেন। বেস্ট অফ ১৪ গেমের লড়াইয়ে ১১ নম্বর গেমেই খেলার নিস্পত্তি ঘটান নরওয়ের এই দাবাড়ু।

সংযুক্ত আরব আমিরশাহীর প্রাণকেন্দ্র দুবাইয়ে অনুষ্ঠিত এই প্রতিযোগীতায় খেতাবি লড়াইয়ে ম্যাগনাস কার্লসেনের পক্ষে খেলার ফল ৭.৫-৩.৫। শুরু থেকেই প্রতিপক্ষ’কে টেক্কা দিয়েছেন কার্লসেন। ইয়ানের কোনও প্রতিরোধেই কাজ হয়নি। নিজের ২৩ নম্বর চালেই মারাত্মক ভুল করে বসেন রাশিয়ার প্রতিযোগী ইয়ান নেপমনিয়াতচি। প্রতিপক্ষের করা ভুলের সুযোগ নিয়ে ৪৯টি চালেই ম্যাচের ভাগ্য গড়ে দেন কার্লসেন।

নেপমনিয়াতচি (বাঁ-দিকে) এবং ম্যাগনাস কার্লসেন (ডান দিকে)। ছবি- পিটিআই।

বিশ্ব দাবা চ্যাম্পিয়নশিপের ইতিহাসে এই ম্যাচে দীর্ঘতম গেমটি জেতেন কার্লসেন। গেম ৬-এ সাদা ঘুঁটি নিয়ে জেতেন তিনি। গেমটি চলেছিল ৭ ঘণ্টা ৪৫ ধরে। মোট ১৩৬টি মুভ হয়েছিল এই গেমে।

এই নিয়ে চতুর্থবার নিজের খেতাব ধরে রাখলেন কার্লসেন। ভারতের বিশ্বনাথন আনন্দ’কে হারিয়ে ২০১৩ সালে প্রথম বার বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপের খেতাব অর্জন করেছিলেন নরওয়ের এই দাবাড়ু। ২০১৪ সালেও আনন্দের কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখ থেকে ম্যাচ বের করে নিয়ে এসেছিলেন। ২০১৬ সালে রুশ গ্র্যান্ডমাস্টার সার্জি কারজাকিন’কে হারিয়ে খেতাব অক্ষত রাখেন। ২০১৮ সালে তিনি পরাস্থ করেন ইতালীয়-আমেরিকান চ্যালেঞ্জার ফ্যাবিয়ানো কারুয়ানা’কে।

এ দিন রুশ প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে চতুর্থ গেমে জিতে এমন জায়গায় চলে যান যেখান থেকে তাঁকে হারানোটাই কঠিন। বিশ্ব দাবার ইতিহাসে কার্লসেনের পাওয়া এত বড় জয় কার্যত বিরল। ঠিক একশো বছর আগে ১৯২১ সালে শেষ বার ফাইনালে এত বড় জয়ের সাক্ষী থেকেছে ক্রীড়া বিশ্ব।

১৯২১ সালে বিশ্ব চ্যম্পিয়নশিপের মঞ্চে কিউবার জোসে রাউল ক্যাপাব্লাঙ্কারের বিরুদ্ধে খেতাবি লড়াইয়ে বড় ব্যবধানে হেরেছিলেন জার্মানির ইমানুয়েল লাস্কার। এই ইমানুয়েল ২৭ বছর বিশ্ব চ্যাম্পিয়নের খেতাব ধরে রেখেছিলেন। ১৮৯৪ থেকে ১৯২১ পর্যন্ত গোটা এই খেতাব দখলে রেখেছিলেন তিনি। যদিও ১৯২১-এ বয়সে তরুণ রাউলের বিরুদ্ধে ৯-৫ ব্যবধানে হারেনি দাবার এই কিংবদন্তি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here