ফোড়নের কালোজিরে কামাল দেখাচ্ছে করোনা মোকাবিলায় ! জানাল অস্ট্রেলিয়ার গবেষকরা

0
396

পিঙ্কি শর্মা, নয়াদিল্লি : ডাল থেকে তরকারি অনেক কিছুতেই আমরা কালোজিরে ফোড়ন দিয়ে থাকি। জানেন কী এই কালোজিরে নাকি করোনা ভাইরাসের চিকিৎসায় কামাল দেখাচ্ছে। অস্ট্রেলিয়ার একদল গবেষক জানিয়েছেন, করোনা ভাইরাসের চিকিৎসায় এই কালোজিরে বা নাইজেলা সিডল রীতিমত সক্রিয়। উত্তর আফ্রিকা, এশিয়ার একাধিক দেশে সংক্রামক রোগের চিরিৎসায় এই কালোজিরে নাকি ব্যবহার করা হয়ে থাকে। ভারতে আয়ুর্বেদিক চিকিৎসায় কালোজিরে ব্যবহার করা হয়ে থাকে। পশ্চিমের দেশ গুলিতে করোনা আবহে ভারতের যোগা, আয়ুর্বেদ বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। আয়ুর্বেদের ব্যবহারকারী একাধিক জিনিস যে কতটা উপকারী তার প্রমাণ মিলছেষ অস্ট্রেলিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকদের এই ঘটনা বলে দিচ্ছে তাঁরা কোন পথে হাঁটতে পারেন।

আম বাঙালি রান্নার কালোজিরে ফোড়নই ম্যাজিকের মতো কাজ করছে করোনা চিকিৎসায়। অস্ট্রেলিয়ার সিডনির ইউনিভার্সিটি অব টেকনোলজির গবেষকরা দাবি করেছেন এই কালোজিরে নাকি করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে অত্যন্ত ভাল কাজ করছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক কানিজ ফতিমা সাদ জানিয়েছেন, এই কালোজিরে ব্যবহার করায় ফুসফুসে এবং গলায় করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ অনেকটাই রোধ করা যাচ্ছে।

কালোজিরে হাসপাতালে ভর্তি রোগীদের উপরেও প্রয়োগ করেছেন তাঁরা। তাতে ভাল ফল মিলেছে বলে জানিয়েছেন গবেষকরা। বিভিন্ন ধরনের অ্যালার্জিতেও এই কালোিজরে ব্যবহার করা হয়। অ্যাজমা, এগজিমা, আর্থারাইটিসের মতো একাধিক রোগের নিরাময়োও এই কালোজিরের ব্যবহার হচ্ছে। হাই ব্লাড প্রেসার, হাইকোলেস্টেরল, ডায়াবেটিসের মতো রোগের চিকিৎসাতেও কালোজিরে ব্যবহার করা হয়ে থাকে। শরীরে ভেতরে ঢুকে একাধিক ব্যাক্টেরিয়াকে মারার ক্ষমতা রাখে এই কালোজিরে

করোনা সংক্রমণের থার্ড ওয়েভের আতঙ্কে কাঁপছে গোটা দেশ। নতুন করে কয়েকটি রাজ্যে করোনা সংক্রমণ বাড়তে শুরু করেছে। তারমধ্যে কেরল, কর্নাটক, তামিলনাড়ু রয়েছে। এই রাজ্যগুলির একাধিক জায়গায় করোনা সংক্রমণ বাড়তে শুরু করেছে। এই নিয়ে রাজ্যগুলিকে সতর্ক করেছে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক। গত কয়েকদিন ধরে এই নিয়ে নতুন উদ্বেগ তৈরি হয়েছে। কর্নাটকের মুখ্যমন্ত্রী বাসবরাজ বোম্মাই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে এই নিয়ে কথাও বলেছেন। কেরল সংলগ্ন জেলাগুলিকে সতর্ক করা হয়েছে।

গোটা দেশে এখনও টিকাকরণ শেষ হয়নি। মোদী সরকার ডিসেম্বর মাসের মধ্যে করোনার টিকাকরণ শেষ করার টার্গেট নিলেও এখনও গোটা দেশে প্রবল টিকা সংকট রয়েছে। একাধিক রাজ্যে মানুষ ঘণ্টার পর ঘণ্টা লাইনে দাঁড়িয়ে টিকা পাচ্ছেন না। এমনকী সরকারি হাসপাতালগুলিতেও টিকা সংকট তৈরি হয়েছে। এই নিয়ে প্রবল বিক্ষোভ দেখা দিয়েছে রাজ্যের একাধিক হাসপাতালে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here