পুজো দিলেন পুরোহিতেরা ! বছরে একবার খোলে দরজা, জানুন জাগ্রত এই নাগচন্দ্রেশ্বর মন্দিরে কথা

0
106

পুজো দিলেন পুরোহিতেরা ! বছরে একবার খোলে দরজা, জানুন জাগ্রত এই নাগচন্দ্রেশ্বর মন্দিরে কথা

BAHRS GLOBAL NEWS, 25 JUL 2020
নিজস্ব সংবাদদাতা ,মধ্যা প্রদেশ : করোনা সংক্রামণ রোধে দেশ ও দেশের সমস্ত রাজ্যে বন্ধ রয়েছে সব রকম ধর্মীয় অনুষ্ঠান। আজ মধ্যপ্রদেশে ‘নাগ পঞ্চমী’ উপলক্ষে পুরোহিতরা নাগচন্দ্রেশ্বর মন্দিরে পুজো দেন। কিন্তু সেখানে ভক্তের সাগোম ছিলোনা। পুরোহিত বলেছেন, “এই মন্দিরের দরজা বছরে একবার খোলা হয়। এই বছর কোভিড-১৯-এর কারণে ভক্তরা ২৪ ঘন্টা অনলাইন দর্শন করতে পারবেন।”
মধ্যপ্রদেশের মহাকাল মন্দিরে শিবের আরাধনার সঙ্গে সঙ্গে শুরু হয়েছে এই পুজো। তবে এদেশে এমন একটি মন্দির রয়েছে যেখানে নাগপঞ্চমী উপলক্ষ্যে বিশেষ পুজো আয়োজিত হয়। বছরে কেবল এই একটি দিনেই খোলে মন্দিরের দরজা।

শিব-পার্বতী-গণেশের মাথায় ছাতার মতো বারিজ করছেন নাগরাজ

উজ্জয়িনীর নাগ চন্দ্রেশ্বর মন্দির ঘিরে রয়েছে একাধিক কাহিনি। শ্রাবণ মাসের শুক্লপক্ষ তিথিতে এখানে গোটা দেশের মতোই ধুমধাম সহকারে আয়োজিত হয় নাগপঞ্চমীর অনুষ্ঠান। আর এমন দিনেই কেবলমাত্র নাগচন্দ্রেশ্বর মন্দিরের দরজা খোলে। আর বাকি দিন বন্ধ থাকে এই মন্দির।
উজ্জয়িনীর নাগ চন্দ্রেশ্বর মন্দির
মনে করা হয় নাগপঞ্চমী তিথিতেই কেবলমাত্র এই মন্দিরের ভিতর প্রকট হন নাগরাজ তক্ষক। আর সেদনিই তিনি ভক্তদের আশীর্বাদ দেন। ফলে নাগ পঞ্চমীর দিনই খোলা হয় মন্দিরের কপাট। আর মন্দিরের মূল মূর্তিতে দেখা য়ায় ,শিব-পার্বতী-গণেশের মাথায় ছাতার মতো বারিজ করছেন নাগরাজ।

বলা হয়, শিবকে তুষ্ট করতে বছরের পর বছর নাগরাজ তক্ষক তপস্যা করেন। এরপর নাগরাজের তপস্যায় খুশি হয়ে শিব তাঁকে বরদান করেন। এরপর থেকেই শিবের সঙ্গে নাগরাজ বসবাস শুরু করেন। প্রসঙ্গত, এই নাগচন্দ্রেশ্বর মন্দিরই বিশ্বের একমাত্র মন্দির যেখানে বিষ্ণুর বদলে নাগশয্যায় থাকেন শিব। আর এই বিরল মূর্তি দেখতে পাওয়া যায় কেবলমাত্র নাগপঞ্চমীর দিন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here