পায়ে হেঁটে আম জনতার দুয়ারে মমতা, আদিবাসী বাড়ির উঠোনে বসে জনসংযোগ নেত্রীর !

0
118

পায়ে হেঁটে আম জনতার দুয়ারে মমতা, আদিবাসী বাড়ির উঠোনে বসে জনসংযোগ নেত্রীর !

এমডি মোতাহার হোসেন, বাঁকুড়া : কর্মীদের আগেই জনতার দুয়ারে পৌঁছে গেলেন মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বাঁকুড়ার খাতড়ায় একটি আদাবাসী গ্রামে গিয়ে সরকারি প্রকল্পের খবর জানান তিনি। গ্রামের বাসিন্দারা সব সুযোগ সুবিধা পাচ্ছেন কিনা তার খোঁজ খবর নেন। তাঁদের আরও সরকারি প্রকল্পের কথা জানান তিনি। এক প্রকার জনতার দরবারে গিয়ে তিনি ভাবা মাত্র কাজ করেন সেটা বুঝিয়ে দিয়েছেন তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী।
মুকুটমণিপুর থেকে খাতড়া যাওয়ার আগে সরদার পাড়া নামে একটি আদিবাসী গ্রামে ঢুকে পড়েন মুখ্যমন্ত্রী। সেখানে গাড়ি থেকে নেমে পায়ে হেঁটে গ্রামের ভেতরে যান। আদিবাসী পরিবারের একেবারে ঘরে ঢুকে তাঁদের উঠোনে খাটিয়ার উপর বসে পড়েন। সেখানে বাড়ির মা-বোনেদের সঙ্গে কথা বলেন মুখ্যমন্ত্রী।

 

সরকারি প্রকল্পের সুবিধা তাঁরা ঠিক মতো পাচ্ছেন কিনা তার খোঁজ খবর নেন। আরও কি কি সুবিধা তাঁরা পেতে পারেন তা সেকথা জানান তিনি। স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পে কী সুবিধা পাবেন তাঁরা সেসম্পর্কে বিস্তারিত জানান। রেশনে চাল কেমন পাচ্ছেন কতটা করে পাচ্ছেন তা নিয়েও খোঁজ খবর নেন। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য ২০২১ সালের জুন মাস পর্যন্ত রেশনে চাল ফ্রি-তে দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছেন মমতা।

বাঁকুড়ার খাতড়ার সভা থেকে দুয়ারে দুয়ারে কর্মসূচি ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। আগামী ১ ডিসেম্বর থেকে ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত চলবে এই কর্মসূচি। যাতে রাজ্যের প্রতিটি বাড়ি গিয়ে সাধারণ মানুষের কাছে সরকারি প্রকল্পের সব সুবিধার সম্পর্কে তথ্য দেবেন তৃণমূল নেতা কর্মীরা। রাজ্যের সব এলাকায় সর্বত্র বাড়ি বাড়ি গিয়ে সরকারি প্রকল্পের সুবিধা প্রচার করবেন তৃণমূল কর্মীরা।
দলীয় কর্মীদের যাওয়ার আগেই নিজ আদিবাসী গ্রামে গিয়ে সেই প্রকল্পের সূচনা করেছেন। গ্রামে ঢুকে আদিবাসী বাড়ির দাওয়ায় বসা এবং উঠোনে বসে কথা বলা নতুন কোনও ঘটনা নয়, এর আগেও একাধিকবার জেলা সফরে গিয়ে আদিবাসী বাড়ির ভেতরে ঢুকে কথা বলেছেন মুখ্যমন্ত্রী।
পশ্চিম মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রাম সহ একাধিক জায়গায় গিয়ে এর আগেও এই ধরনের কাজ করেছেন। এটাই জনসংযোগের কায়দা মমতার। একুশের ভোটের আগে আবারও সেই কায়দাতেই শান দিলেন তিনি। এবার বাঁকুড়ার গ্রামে পৌঁছে গিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। রাজ্যে আদিবাসী ভোট নিয়ে প্রবল টানাটানি চলছে।
প্রথম থেকেই বিজেপি আদিবাসী ভোটের দিকে নজর দিয়ে বসে রয়েছে। সেকারণেই অমিত শাহ এবার রাজ্যে এসে আদিবাসী পরিবারের বাড়িতে মধ্যাহ্ন ভোজন সেরেছেন। যদিও পুরোটাই ভাঁওতাবাজি বলে অমিত শাহকে আক্রমণ শানিয়েছেন মমতা।
তিনি পাল্টা অভিযোগ করেছেন পাঁচ তারা হোটেলের রান্না আদিবাসী পরিবারের নিয়ে গিয়ে খেয়েছেন অমিত শাহ। এমনকি বিরসা মুন্ডার ভুল মুর্তিেত মালা দিয়ে মিথ্যে কথা বলেছেন। বারসা মুন্ডার স্মরণে ছুটি ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here