পাকিস্তানের করাচিতে বসে ভারতে ‘সিরিয়াল ব্লাস্ট’-এর পরিকল্পনা! হাড়হিম করা তথ্য গোয়েন্দাদের হাতে !

0
547

অমিত শর্মা, নয়াদিল্লি : সদ্য দিল্লি থেকে কয়েকদন সন্দেহভাজন জঙ্গিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গেয়েন্দাদের কাছে নির্দিষ্ট সূত্র অনুযায়ী খবর আসতেই ২৮ বছরের জিশান কামার সহ একাধিক যুবককে গ্রেফতার করা হয়েছে। এরপর তাদের বয়ান ও বিভিন্ন তথ্য মিলিয়ে মুম্বই এটিএসএর দেওয়া খবরের সঙ্গে মিলিয়ে হাড়হিম করা এক জলছবি সামনে এসেছে দিল্লির। জানা গিয়েছে করাচির বুকে বসে পাকিস্তানি জঙ্গি মডিউল উৎসবের মরশুমে করোনা আবহে ভারতের তামাম বড় শহরে পর পর বিস্ফোরণের পরিকল্পনা করেছে। ছয় সন্দেহভাজন জঙ্গির থেকে এ ছাড়াও একাধিক তথ্য বের করেছে পুলিশ।

গোয়েন্দা সূত্রের খবর, দিল্লি থেকে যে ছয় জন ব্যক্তি গ্রেফতার হয়েছে জঙ্গি সন্দেহে, তাদের কাছে যে অস্ত্র রয়েছে, তা হুবহু পাঞ্জাবে পাকিস্তান সীমান্ত থেকে আসা ড্রোনের মাধ্যমে ফেলা অস্ত্রের সঙ্গে মিলে যাচ্ছে। দিল্লির ছয় সন্দেহভাজনকে গ্রেফতার করার পর রও ছয় থেকে ৭ জনের খোঁজে তল্লাশি শুরু করে দিয়েছেন গোয়েন্দারা। গোয়েন্দাদের হাতে যে সমস্ত তথ্য এসে পৌঁছেছে তাতে জানা গিয়েছে, করাচির বুকে বসে ভারতের বড় শহরগুলিতে হামলার ছক কষেছে বহু জঙ্গি সংগঠন। তাতে দাউদের ডি গ্যাং এর নামও উঠছে।

ধৃত সন্দেহভাজন জঙ্গি জিশান পুলিশকে জানিয়েছে, তার সঙ্গে পাকিস্তান থেকে আসা ছয় থেকে সাত জনকে দেখা করার কথা বলা হয়েছে। এদিকে, জঙ্গিদের প্রশিক্ষণ দিতে কয়েকজন প্রশিক্ষকের নাম উঠে আসছে। যাদের করাচির এক ফার্ম হাউসে নিরাপদে রাখা হয়েছে বলে খবর। এই প্রশিক্ষণে আইইডি, অস্ত্র চালনা সম্পর্কিত শিক্ষা ১৫ দিনের মধ্যে দেওয়ার পরিকল্পনা ছিল বলে ভারতীয় গোয়েন্দারা জানতে পেরেছেন। জানা গিয়েছে, করাচির ফার্ম হাউসের সেফ জোনে যে প্রশিক্ষকরা রয়েছে তারা জানিয়েছে কোনও ছোট জঙ্গি সংগঠনকে তারা প্রশিক্ষণ দেয় না। ফলে তাবড়া নামী জঙ্গি সংগঠনকে তারা প্রশিক্ষণ দেবে। সেই সূত্রে লস্কর জঙ্গিদের নাম হাতে পেয়েছেন ভারতীয় গোয়েন্দারা।

পাকিস্তানের বুকে বসে ভারতে অশান্তির সলতে যখন পাকানো হচ্ছে, তখন ভারতের গোয়েন্দারা এই পুরো জঙ্গি মডিউলের পর্দা ফাঁস করে দিয়েছেন। জানা গিয়েছে, যারা ধরা পড়েছে তাদের মধ্যে জনৈক সন্দেহভাজন জঙ্গি ওসামার বাবার অ্যাকাউন্ট থেকে দুবাই থেকে ৩ লাখ টাকা পাঠানো হয়। এই টাকা ভারতে পর পর বিস্ফোরণের জন্য ব্যবহার করার ক্ষেত্রে পাঠানো হচ্ছে বলে জানতে পারে গোয়েন্দারা। দুবাই খুব শিগগিরিই ধৃত সন্দেহভাজন জঙ্গির বাবা ওসাদুরকে ভারতের হাতে তুলে দেবে বলে খবর। এদিকে দিল্লি থেকে ধৃত জান মহম্মদ শেখের কাছে দাউদ গ্যাংয়ের সরাসরি বার্তার খোঁজ মিলেছে।

জানা গিয়েছে, এই বিস্ফোরণকে বাস্তবিক রূপ দিতে ডি কম্পানি প্রচুর পরিমাণ বিস্ফোরক দেশের বিভিন্ন অংশে জান মহম্মদের হাত দিয়ে পাঠানোর বন্দোবস্ত করেছে। গোয়েন্দা সূত্রের খবর, পাকিস্তানের গুপ্তচর সংস্থা আইএসআইএর সূত্র ধরে এই গোটা সন্ত্রাস মডিউল চলছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here