দেশের হয়ে প্রথম কাপ জয় মেসির,ব্রাজিলকে হারিয়ে কোপা আমেরিকা জিতল আর্জেন্তিনা ! দেখুন

0
432

অমিত শর্মা, নয়াদিল্লি : স্বপ্ন পূরণ। দেশের হয়ে প্রথম কাপ জয় মেসির। রিও-র মারাকানায় ব্রাজিলকে হারিয়ে এই নিয়ে ১৫ বার কোপা আমেরিকা জিতল আর্জেন্তিনা। নিজের প্রথম কোপা আমেরিকা ফাইনালে হতাশ হতে হল নেইমারকে। ২২ মিনিটে আনহেল দি মারিয়ার গোলের সুবাদে এই প্রথম দেশের হয়ে কোনও কাপ জেতার স্বাদ পেলেন লিওনেল মেসি।

১৯৯৩ সালের পর কোপা আমেরিকায় চ্যাম্পিয়ন হল আর্জেন্তিনা। এরপর চারটি ফাইনাল খেললেও একবারও ট্রফি জিততে পারেনি নীল-সাদা জার্সিধারীরা। দুবার ব্রাজিল ও দুবার চিলির কাছে হারতে হয়েছিল। কোপা আমেরিকা খেতাব জয়ের ২৮ বছরের প্রতিপক্ষের অবসান ঘটল আজ। আয়োজক দেশ হিসেবে এই প্রথম কোপা আমেরিকায় ব্রাজিল পরাস্ত হতেই।

মারাকানায় কোপা আমেরিকা ফাইনালে প্রথমার্ধে ব্রাজিলের বিরুদ্ধে ১ গোলে এগিয়ে ছিল আর্জেন্তিনা। ২০০৪ সালের কোপা আমেরিকা ফাইনালে সিজার দেলগাডোর পর প্রথম আর্জেন্তিনার ফুটবলার হিসেবে গোল করেন আনহেল দি মারিয়ার, রদ্রিগো দে পলের বাড়ানো দূরপাল্লার পাস ধরে। ম্যাচের ২২ মিনিটে গোল করে দলকে এগিয়ে দেন আর্জেন্তিনার এই নির্ভরযোগ্য ফুটবলার। দেশের হয়ে শেষ গোল করেছিলেন ২০১৮ সালের বিশ্বকাপে। সেই ম্যাচে ফ্রান্সের কাছে ৩-৪ গোলে হেরে রাউন্ড অব সিক্সটিন থেকে বিদায় নিয়েছিল আর্জেন্তিনা। যদিও এদিন ট্রফি এল দি মারিয়ার গোল থেকেই। এদিনের ম্যাচে অত্যধিক ফাউল ও তার কারণে প্রচুর হলুদ কার্ড ফাইনাল ম্যাচের জৌলুস খানিকটা ফিকে করেছে। দুই দলের রক্ষণকেও জমাট দেখায়নি। তার সুবিধা আর্জেন্তিনা নিতে পারলেও, পারেনি ব্রাজিল।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকে আক্রমণের ঝাঁঝ বাড়ায় ব্রাজিল। ৫২ মিনিটে রিচার্লিসনের গোল অফ সাইডের কারণে বাতিল হয়। এর তিন মিনিট পর তাঁর আরেকটি শট অনবদ্য দক্ষতায় বাঁচিয়ে দেন এমিলিয়ানো মার্তিনেজ। প্রতি আক্রমণে গোলের সুযোগ তৈরি করছিল আর্জেন্তিনাও। কিন্তু নেইমাররা মরিয়া লড়াই চালিয়েও শেষরক্ষা করতে পারেননি। চলতি কোপা আমেরিকায় এই নিয়ে তৃতীয় গোল হজম করে কাপ হাতছাড়া করল ব্রাজিল। অন্যদিকে, মেসি আগের ম্যাচগুলির তুলনায় খানিকটা নিষ্প্রভই ছিলেন। ৮৮ মিনিটে সহজতম সুযোগ তিনি নষ্ট করেন। ব্রাজিলিয়ান গোলকিপারকে ড্রিবল করতে গিয়ে বল জালে জড়াতে পারেননি। কিন্তু তা সত্ত্বেও এল স্বস্তির ট্রফি। ২০০৪ ও ২০০৭ সালে ব্রাজিলের কাছে কোপা আমেরিকা ফাইনালে পরাজয়ের মধুর প্রতিশোধ মেসিরা নিলেন মারাকানায়। খেতাব ছিনিয়ে নিলেন চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ব্রাজিলের কাছ থেকেই।

ব্রাজিল ও আর্জেন্তিনার ভক্তদের অবশ্য প্রিয় দলের খেলা দেখার জন্য এবার অপেক্ষা করতে হবে সেপ্টেম্বরে। মেসি ও নেইমারের দল খেলবে বিশ্বকাপের যোগ্যতা অর্জন পর্বে। আর্জেন্তিনা খেলবে ভেনেজুয়েলার বিরুদ্ধে এবং ব্রাজিলের সামনে চিলি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here