দেরিতে হলেও সেমিস্টারের পরীক্ষা হবেই জানিয়ে দিল বিকাশ ভবন !

0
460

দেরিতে হলেও সেমিস্টারের পরীক্ষা হবেই জানিয়ে দিল বিকাশ ভবন !

BAHRS GLOBAL NEWS, 17 APR 2020
পিয়ালী সিনহা,কলকাতা : চলছে দেশ জুড়ে টানা লকডাউন। এর ফলে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে টানা ছুটিতে কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতকত্তরের পড়ুয়ারা চলতি সেমিস্টার থেকে এক ধাপ এগোলেও চলতি সেমিস্টারের পরীক্ষা দিতেই হবে। তবে পূর্ণ নির্ধারিত সূচি অনুযায়ী মে জুনে নয়। তার বদলে পরের সেমিস্টারের সঙ্গে অর্থাৎ নভেম্বর ডিসেম্বরেই হবে চলতি সেমিস্টারের পরীক্ষা। এমনই ইঙ্গিত উচ্চশিক্ষা দপ্তরের কর্তাদের। তাদের বক্তব্য ,পড়ুয়াদের যে পরীক্ষায় বসতেই হবে তা নিয়ে কনো বিভ্রান্তি নেই।
বিকাশ ভবনের কর্তাদের বক্তব্য মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বুধবার জানান, স্নাতক ২ ও ৪ , স্নাতকোত্তর ২ এবং ইঞ্জিনিয়ারের ২,৪ ও ৬ সেমিস্টারে থাকা পড়ুয়ারা চয়েস বেস ডক্রেডিট সিস্টামের গাইড লাইন মেনেই এক ধাপ এগিয়ে যাবেন।
অর্থাৎ স্নাতকে দেইতীয় ও চতুর্থ সেমিস্টারের পড়ুয়ারা যথাক্রমে তৃতীয় ও পঞ্চম স্নাকোত্তরের দ্বিতীয় সেমিস্টারের ছাত্রছাত্রীরা তৃতীয় এবং কারিগরি শাখায় দ্বিতীয় , চতুর্থ ও ষষ্ঠ সেমিস্টারের পড়ুয়ারা তৃতীয় পঞ্চম এবং সপ্তম সেমিস্টারে পড়বেন জুলাই থেকে।
লকডাউন উঠলেও ১০ জুন ছুটির পর কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় খুললে পরীক্ষা হবে শুধু ফাইনাল সেমিস্টারের। অর্থাৎ স্নাতকে ষষ্ঠ , স্নাতকোত্তরে চতুর্থ ,ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে অষ্টম। সব মিলিয়ে রাজ্যে স্নাতকে ১৬লক্ষ ৩হাজার ৯৪১ এবং স্নাতকোত্তরে ৮৬হাজার ২৫০জন নিয়মিত পড়ুয়া আছেন।
উচ্চশিক্ষা দপ্তরের কর্তাদের পাশাপাশি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ও পরীক্ষা নিয়ামক এবং কলেজ অধ্যক্ষরা বুধবার সন্ধ্যা থেকেই ফোনে জেরবার। শিক্ষাবর্ষের মাঝপর্বে থাকা পড়ুয়া ও অভিভাবকদের প্রশ্ন করোনার জেরে লকডাউন ও ছুটিতে স্থগিত বিভিন্ন সেমিস্টারের পরীক্ষা আদৌও দিতে হবে কি না।
বিকাশ ভবনের আধিকারিকরা জানাচ্ছেন,মঙ্গলবার রাতে উপাচার্যদের সঙ্গে শিক্ষামন্ত্রীর ভিডিও কনফারেন্সে দুটি সেমিস্টারের পরীক্ষা এক সঙ্গে নেওয়ার কথা উঠেছে। সেক্ষেত্রে ডিসেম্বরে পরীক্ষা নেওয়ার কথা ভাবা হচ্ছে। একটা করে সেমিস্টার এগোলেও চলতি সেমিস্টারের পরীক্ষা দিতে হবে না এমনটা কিন্তু নয়।
মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণার পরেই শিক্ষক , পড়ুয়া , অভিভাবক মহলে জল্পনা তৈরি হয়। বিকাশ ভবনের বক্তব্য ,মুখ্যমন্ত্রী কিন্তু সিবিসিএস গাইডলাইন উল্লেখ করেছিলেন। সেই নির্দেশিকা অনুযায়ী কোনো সেমিস্টারের পরীক্ষা একেবারে না দিয়ে স্নাতক ও স্নাতকোত্তরে উত্তীর্ণ হতে পারবেন না।বাকি থাকা পরীক্ষায় পড়ুয়াদের আগে পাস করতেই হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here