জলপাইগুড়িতে ধৃত ভুয়ো চিকিৎসক ! রাজ্যের তিন জেলায় খুলে বসেছিল চেম্বার

0
627

অনুশিবা সেন , জলপাইগুড়ি : সোমবার জলপাইগুড়ি রাজগঞ্জ থেকে আটক এক ভুয়ো চিকিৎসক। পেশায় তিনি কনো ডাক্তার না নেই কনো ডাক্তারি পাশের বৈধ কাগজ কিন্তু দিব্যি রোগী দেখতেন একধিক চেম্বারে। শুধু রোগী দেখাই নয় অস্ত্রোপচার করছিলেন। সরকারি সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালের চিকিৎসকের নাম ও রেজিস্ট্রেশন নম্বর ব্যবহার করে দিনের পর দিন রোগীদের চিকিৎসা চালিয়ে জাচ্ছিলেন সুদীপ্ত সর্দার নামের ওই যুবক। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে সুদীপ্তের বাড়ি দক্ষিন ২৪ পরগনার বারুইপুর এলকায়।

সোমবার সুদীপ্ত কে আটক করে বাঁকুড়া জেলার পুলিশ। ওই দিনই জলপাইগুড়ি জেলা আদালতে সুদীপ্তকে পেশ করে পুলিশ ট্রানজিট রিমান্ডের আবেদন জানালে আদালত দু’দিন ট্রানজিট রিমান্ডের আবেদন মঞ্জুর করে। এরপরেই ওই ভুয়ো চিকিৎসক সুদীপ্ত সর্দারকে নিয়ে বাঁকুড়ার উদ্দেশ্যে রওনা দেন তদন্তকারীরা।

বাঁকুড়ার পুলিশ সুপার ধৃতিমান সরকার বলেন, প্রাথমিক ভাবে আমরা কিছু তথ্য পেয়েছি। অভিযুক্তকে বাঁকুড়া জেলা আদালতে পেশ করে পুলিশ হেফাজতের জন্য আবেদন জানানো হবে। হেফাজতে নিয়ে তাঁকে জেরা করলে বিশদ তথ্য পাওয়া যাবে বলে আমরা আশাবাদী।

বাঁকুড়া জেলা পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, বড়জোড়া থানায় লিখিত অভিযোগ জানায় বড়জোড়া সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালের চিকিৎসক সুদীপ্ত সর্দার। তিনি অভিযোগ করেন তাঁর নাম এবং মেডিক্যাল কাউন্সিল অব ইন্ডয়া-র রেজিস্ট্রেশন নম্বর ব্যবহার করে এক ব্যক্তি অর্থের বিনিময়ে বিভিন্ন জায়গায় রোগীদের প্রতারণা করছে।

চিকিৎসকের অভিযোগের ভিত্তিতে ভারতীয় দন্ডবিধির ৪১৭, ৪১৯, ৪৬৮, ৪৬৯, ৪৭৩ এবং ৩৪ নম্বর নম্বর ধারায় মামলা রুজু হয়। অভিযুক্ত বড়জোড়া সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালের চিকিৎসক সুদীপ্ত সর্দারের নাম ভাঙিয়ে ২০১৯ সাল থেকে হওড়া ,দক্ষিন ২৪ পারগানা এবং জলপাইগুড়ি জেলার একাধিক জায়গায় অর্থের বিনিময়ে চেম্বার খুলে চিকিৎসা চালিয়ে যাচ্ছিলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here