কৈলাশ বহিরাগত, আকাশ বিজয়বর্গীয় গুন্ডা, ক্ষমতা থাকলে মামলা করুক বিজেপি, হুঙ্কার অভিষেকের !

0
108

লক্ষী শর্মা, দক্ষীণ দিনাজপুর : তোলাবাজ ভাইপো হঠাও। বিজেপিতে যোগ দিয়েই স্লোগান দিয়েছিলেন শুভেন্দু অধিকারী। তার পাল্টা জবাবে ডায়মন্ড হারবারের সভা থেকে উল্টে শুভেন্দুকেই তোলাবাজ বলে আক্রমণ শানিয়েছিলেন অভিষেক। এবার গরুপাচার কাণ্ড নিয়ে শুভেন্দুর একের পর এক আক্রমণের জবাব দিলেন তৃণমূল যুব কংগ্রেস সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। সরাসরি তিনি শুভেন্দুকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে বলেছেন তোলাবাজ প্রমাণ করতে পারলে ইডি সিবিআই লাগাতে হবে না ফাঁসির মঞ্চ গড়ে দেবেন সেখানে গিয়ে ফাঁসিতে ঝুলে যাব।

গঙ্গারামপুরের সভা থেকে আবারও শুভেন্দু অধিকারীর বিরুদ্ধে আক্রমণ শানালেন তৃণমূল যুব কংগ্রেস সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোরাধ্যায়। তৃণমূল নেতা শুভেন্দুকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে বলেছেন তোলাবাজ প্রমাণ করতে পারলে তিনি ফাঁসিতে ঝুলে যাবেন তার জন্য ইডি সিবিআই লাগাতে হবে না। প্রসঙ্গত উল্লেখ যোগ্য গত কয়েকটি সভায় গরুপাচার কাণ্ডে অভিষেক ঘনিষ্ঠের বাড়িতে সিবিআই হানা দিয়েছিল তারপরেই শুভেন্দু আক্রমণ শানিয়ে বলেছিলেন এবার একেবারে চৌকাঠে চলে এসেছে। চৌকাঠ পেরোলেই ভাইপো।

বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর থেকেই অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে একের পর এক নিশানা করেছেন শুভেন্দু অধিকারী। অমিত শাহের সভা থেকেই তলাবাজ ভাইপো হঠাও হুঙ্কার দিয়েছিলেন তিনি। তারপরে যতবার সভা করেছেন ততবার তোলাবাজ ভাইপো বলে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে আক্রমণ শানিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী। তোলাবাজ ভাইপো হঠাও একাধিক জনসভায় ডাক দিয়েছিলেন শুভেন্দু অধিকারী। এমনকী গরুপাচার কাণ্ডে এবার অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে গ্রেফতার করা হবে বলে আক্রমণ করেছিলেন শুভেন্দু।

অধিকারী পরিবারে শুভেন্দু পদ্ম ফোটাতে পারেননি বলে কটাক্ষ করেছিলেন অভিষেক। তার পরেইউ শুভেন্দুর ভাই সৌমেন্দু অধিকারী বিজেপিতে যোগ দেন। গঙ্গারামপুরের সভা থেকে সেই অধিকারী পরিবারকে এবার নিশানা করলেন অভিষেক। তিনি বলেছেন এঁরা উপসর্গহীন বেইমান। একে একে প্রকাশ্যে আসতে শুরু করেছে। মিরজাফর শুভেন্দু অধিকারী। আক্রমণে বলেেছন অভিষেক।

শুভেন্দু অধিকারী একাধিক জনসভায় বলেছেন বাংলাকে মোদী সরকারের হাতে তুলে দিতে হবে। দিল্লিতে ও বাংলায় একই দলের সরকার থাকবে তবেই বাংলার উন্নয়ন সম্ভব। তার পাল্টা আক্রমণ করে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন বাংলা কি হাতের মোয়া যে বিজেপির হাতে তুলে দিতে হবে। দিল্লিতে আর বাংলায় একই সরকার থাকলে সুবিধা হয়। সহজেই চুরি করা যায়। ইডি সিবিআই ধরে না। দিল্লির কােছ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মাথা নত করবেন না বলে হুঙ্কার দিয়েছেন অভিষেক।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here