কথা রাখলেন মুখ্যমন্ত্রী, ছাত্রছাত্রীদের জন্য এবার বড় সিদ্ধান্তের অনুমোদন দিল মমতার মন্ত্রিসভা !

0
751

তীর্থঙ্কর মুখার্জি, কলকাতা : যেমনটা বলা তেমনটাই অক্ষরে অক্ষরে পালন। নির্বাচনী ইস্তেহার মতোই কাজ শুরু করে দিল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বাধীন মন্ত্রিসভা। এদিন মন্ত্রিসভার বৈঠকে ছাত্রছাত্রীদের জন্য স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ডের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এই প্রকল্পের কাজ শুরু হচ্ছে ৩০ জুন থেকে।

ভোটের আগে ১৭ মার্চ বুধবার কালীঘাটের বাড়ি থেকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তৃণমূলের নির্বাচনী ইস্তেহার প্রকাশ করেছিলেন। সেই ইস্তেহারে যামন স্টুটেন্ট ক্রেডিট কার্ডের কথা বলেছিলেন, ঠিক তেমনই বছরে ৫ লক্ষ চাকরির প্রতিশ্রুতিও দিয়েছিলেন। তৃণমূলের প্রতিশ্রুতিতে ছিল সব বিধবার জন্য ১০০০ টাকা করে ভাতার কথা। বলা হয়েছিল ১৮ বছর বয়সে যদি কারও স্বামী মারা যান তাহলে প্রতিমাসে ১০০০ টাকা করে দেওয়া হবে। পাশাপাশি বছরে দুবার করে দুয়ারের সরকার কর্মসূচি পালন করা হবে। অর্থনৈতিকভাবে পিছিয়ে পড়া পরিবারগুলির জন্য মাসে ৫০০ টাকা করে এবং তপশিলি পরিবারগুলির জন্য ১ হাজার টাকা করে দেওয়া প্রতিশ্রুতিও দেওয়া হয়েছিল।

এদিন নবান্নে করা সাংবাদিক সম্মেলনে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন, রাজ্যের ছাত্রছাত্রীদের জন্য ক্রেডিট কার্ড প্রকল্প শুরু হবে ৩০ জুন থেকে। এদিন রাজ্য মন্ত্রিসভার বৈঠকে বিষয়টি অনুমোদিত হয়েছে বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। এর সুবিধা পেতে গেলে ছাত্রছাত্রীদের অন্তত ১০ বছর এরাজ্যের স্থায়ী বাসিন্দা হতে হবে।

মুখ্যমন্ত্রী এদিন জানিয়েছেন, ছাত্রছাত্রীরা স্নাতক হলেই এই সুবিধা পাবেন। শুধু রাজ্যে কিংবা দেশেই নয়, বিদেশে পড়তে যাওয়ার ক্ষেত্রেও এই ক্রেডিট কার্ডের সুবিধা পাওয়া যাবে। ৪০ বছর বয়স পর্যন্ত এই সুবিধা পাওয়া যাবে। ছাত্রছাত্রীরা যে টাকা ধার হিসেবে ব্যাঙ্ক থেকে নেবেন, তা ফিরিয়ে দিতে হবে ১৫ বছরের মধ্যে। জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

মুখ্যমন্ত্রী এদিন জানিয়েছেন, ৪ শতাংশ সুদে ছাত্রছাত্রীরা এই ক্রেডিট কার্ড পাবে। সরকারই এই টাকার জামিনদার হবে। ছাত্রছাত্রীরা জবে সাবলম্বী হতে পারে সেই কারণেই এই পদক্ষেপ বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here