আমাদের যারা সুরক্ষা দিচ্ছে তাদের নুন্যতম সুরক্ষা কেন্দ্র সরকার দেয়নি,অভিষেক

0
202

আমাদের যারা সুরক্ষা দিচ্ছে তাদের নুন্যতম সুরক্ষা কেন্দ্র সরকার দেয়নি,অভিষেক

BAHRS GLOBAL NEWS, 19 FEB 2019
তির্থঙ্কর মুখার্জী, কোলকাতা : সোমবারজের চিল ড্রেন পার্কে এক সেতুর ভিত্তির প্রস্তর স্থাপন করতে এসে এক অনুষ্ঠানে যোগদেন সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিন সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্যোগে ও পুর্ত দপ্তরের আর্থিক আনু কুল্যে বজ বজের চুড়িয়াল সেতুর ভিত্তির প্রস্তর স্থাপন করে তিনি বলেন , একেরপর এক ভারতে জঙ্গি হানা সন্ত্রাস বাদ থাবা গেঁড়ে বসেছে।

কিন্তু প্রধানমন্ত্রী খমতায় আসার আগে বলেছিলেন কালোটাকা ধ্বংস হয়ে যাবে,সন্ত্রাস বাদ ধ্বংস হবে। দুই বছর পর আমাদের উপলব্ধি হচ্ছে আধা সামরিক জওয়ানরা নরেন্দ্র মোদীর পাঁচ বছরের শাসন কালে যত জন প্রাণ হারিয়েছে ৭০ বছরে তা হয়নি। আমাদের যারা সুরক্ষা দিচ্ছে তাদের নুন্যতম সুরক্ষা কেন্দ্র সরকার দেয়নি। এদিন সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে তোপ দেগে আরো বলেন, কার ফ্রিজে মুরগির মাংস রয়েছে কারুর গাড়িরতে গরুর মাংস রয়েছে এই কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে সব তথ্য থাকে।

কিন্তু সাড়ে ৩০০ কেজি আর ডি এক্স ঢুকে আমাদের সেনাকে ঝাঁজরা করে দিচ্ছে এই তথ্য কেন্দ্র সরকারের কাছে নেই এটা লজ্জার দু:খের। জাতিগত দল মত নির্বিশেষে ভারত বাসী ভারতীয় সরকারকে বলছে যে ভাষায় এরা বোঝে সেই ভাষায় এদের জবাব দিতে হবে। ভারতের সরকার ৫ বছর হিন্দু-মসুলম আর ইডি আর সিবিআই না করে ইন্ডিয়ান সেনাদের উদ্বুদ্ধ করতো এই পরিনতি হতো না।

আমাদের সকলের দায়িত্ব, লক্ষ্য আমাদের পরিবারের একজন আগামী দিনে ভারতীয় সেনায় যাবে। আমার পুত্র সন্তান হলেও পাঠাবো। পাশাপাশি সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় আরো বলেন, উন্নয়ন আমাদের একমাত্র হাতিয়ার। কেন্দ্রীয় সরকারের রিপোর্ট বলছে ৪২ টি লোকসভা কেন্দ্রের মধ্যে ডায়মন্ড হারবার লোকসভা এক নাম্বারে। সাতটি বিধানসভায় ঢেলে উন্নয়ন হয়েছে।

বাম আমলে একটা ইট পুতে শিল্যানাস করলে ঢাক ঢোল বাজতো। সেই কাজ শুরুও হতনা আর শেষও হতনা। আমরা আরম্ভের সরকার তারা শেষের সরকার। কথা দিলে কথা রাখি। আগামী একবছরের মধ্যে চড়িয়াল সেতু সম্পূর্ণ হবে।

স্বামীজী শিখিয়ে ছিলেন আমাদের ধর্ম ভেঙে দেওয়া গুঁড়িয়ে দেওয়া নয়। মানব সেবার ধর্ম শিখিয়েছে। এদিন সাংসদ উন্নয়ন তুলে ধরে বলেন, বজ বজ আর পুজালিতে জলের সমস্যা মিটিয়েছি। বজ বজ এক ব্লকে ৯৫ শতাংশ রাস্তার কাজ সম্পন্ন হয়েছে। আমাদের উন্নয়ন বাড়িতে বাড়িতে পৌঁছে গিয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here