আফগানিস্তান দখলে নিতেই কাশ্মীর প্রসঙ্গ নিয়ে অবস্থান স্পষ্ট করল তালিবানরা !

0
457

পিঙ্কি শর্মা, নয়াদিল্লি : আফগানিস্তান তালিবানদের দখলে যেতেই ফের উঠে এল কাশ্মীর প্রসঙ্গ। এক্ষেত্রে অবশ্য ভারতের সম্মান বজায় রেখেই জবাবা দিয়েছে তালিবানরা। তাঁরা জানিয়েছেন কাশ্মীর একেবারেই ভারতের অভ্যন্তরীন বিষয়। এই িনয়ে তারা কোনও কথা বলতে রাজি নয়। আফগানিস্তানে সরকার গঠন নিয়ে বেশি আগ্রহী এখন তারা।

গোটা একটা দেশ জঙ্গিদের দখলে। অবিশ্বাস্য হলেও ঘটেছে সেই ঘটনা। তালিবানরা সরকার গঠন করার প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছে আফগানিস্তানে। কাবুল দখলের পরেই দেশের নাম বদলের সিদ্ধান্ত নিয়েছে তারা। একেবারে খোলনলচে বদলে ফেলে একেবারে নতুন দেশ গড়ার প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছে তারা। আফগান নারীদের সুরক্ষার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে জঙ্গি নেতারা।এই নিয়ে আফগানিস্তানের মহিলা চিকিৎসক এবং স্বাস্থ্যকর্মীদের সঙ্গে বৈঠক করেছে তালিবান নেতারা। তাঁদের কাজে ফেরানোর অনুরোধ জানিেয়ছেন তাঁরা। তাঁদের কর্মক্ষেত্রে সম্পূর্ণ সুরক্ষা দেওয়া হবে বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন তালিবান নেতারা।

গোটা একটা দেশ জঙ্গিদের দখলে। অবিশ্বাস্য হলেও ঘটেছে সেই ঘটনা। তালিবানরা সরকার গঠন করার প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছে আফগানিস্তানে। কাবুল দখলের পরেই দেশের নাম বদলের সিদ্ধান্ত নিয়েছে তারা। একেবারে খোলনলচে বদলে ফেলে একেবারে নতুন দেশ গড়ার প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছে তারা। আফগান নারীদের সুরক্ষার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে জঙ্গি নেতারা।এই নিয়ে আফগানিস্তানের মহিলা চিকিৎসক এবং স্বাস্থ্যকর্মীদের সঙ্গে বৈঠক করেছে তালিবান নেতারা। তাঁদের কাজে ফেরানোর অনুরোধ জানিেয়ছেন তাঁরা। তাঁদের কর্মক্ষেত্রে সম্পূর্ণ সুরক্ষা দেওয়া হবে বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন তালিবান নেতারা।

তালিবানরা আফগানিস্তান দখল করতেই কাশ্মীর প্রসঙ্গ উঠতে শুরু করেছে। কারণ কাশ্মীরে জঙ্গি তৎপরতা আরও বাড়বে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। তারপরেই তালিবানদের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে কাশ্মীর ভারতের অভ্যন্তরীন বিষয়। এবং দ্বিপাক্ষিক বিষয়। আপাতত তারা আফগানিস্তানে সরকার গঠনের দিকে মন দিতে চায়। কাশ্মীর নিয়ে তারা কোনও রকম বক্তব্য রাখতে রাজি নয় বলে জানিয়েছেন তাঁরা।

কাশ্মীর তালিবানদের এই অবস্থান যথেষ্ট দায়িত্বপূর্ণ বলে মনে করছে কূটনৈতিক মহল। কারন তালিবানদের দখলে আফগানিস্তান েযতেই অনেক জঙ্গি সংগঠনই ভারতে সক্রিয় হয়ে উঠতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। এমনকী পাক জঙ্গিসগঠন গুলোও জোর পেতে শুরু করবে বলে মনে করা হচ্ছে। ইতিমধ্যেই পাকিস্তানের একাধিক জঙ্গি সংগঠনের সদস্য আফগানিস্তানে প্রবেশ করেছে বলে খবর পাওয়া গিয়েছে।

আফগানিস্তানের পরিস্থিতি নিয়ে ইতিমধ্যেই বৈঠক করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। দিল্লিতে নিজের বাসভবনে প্রধানমন্ত্রী মোদী মন্ত্রিসভার বৈঠক করছেন। সেই বৈঠকে রয়েছেন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত ডোভাল। রয়েছেন কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং। রয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ এবং কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন। তালিবানরা কী অবস্থান নেয় তার উপর প্রতিমুহূর্তে নজর রাখা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত ডোভাল।

তালিবানরা আফগানিস্তান দখল করতেই জঙ্গি কার্যকলাপ নিয়ে শঙ্কা বাড়ছে গোটা বিশ্বে। কাশ্মীর নিয়ে চিন্তায় রয়েছে ভারতও। তালিবানদের শক্তি বৃদ্ধির সুযোগ পাক জঙ্গি সংগঠনগুলি নিতে শুরু করবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। কাশ্মীরে সুরক্ষা আরও বাড়ানো হয়েছে বলে সূত্রের খবর। কাশ্মীরে পাক জঙ্গি সংগঠনগুলি নতুন করে শক্তি বাড়াবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। যদিও তালিবানরা বারবার দাবি করেছে তারা আফগানিস্তানকে জঙ্গিডেরা হতে দেবে না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here