আফগানিস্তানকে নিউজিল্যান্ড হারিয়ে দিতেই টি ২০ বিশ্বকাপে বিদাই ভারতের ! এক নজড়ে খেলার বিবরণ

0
403

পিঙ্কি শর্মা, নয়াদিল্লি : আফগানিস্তানকে নিউজিল্যান্ড হারিয়ে দিতেই টি ২০ বিশ্বকাপ অভিযান শেষ হয়ে গেল ভারতের। ভারতের সঙ্গে ছিটকে গেল আফগানিস্তানও। পাকিস্তান স্কটল্যান্ডের কাছে না হারলেই গ্রুপ ২ থেকে নিউজিল্যান্ড সেমিফাইনালে যাবে দ্বিতীয় দল হিসেবে। সেক্ষেত্রে সেমিফাইনালে নিউজিল্যান্ড খেলবে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে। অস্ট্রেলিয়ার মুখোমুখি হবে পাকিস্তান। তার আগে ভারতের কাল নামিবিয়ার বিরুদ্ধে ম্যাচ হয়ে দাঁড়াল নিয়মরক্ষার।

২০১৯ সালের বিশ্বকাপ সেমিফাইনালে নিউজিল্যান্ডের কাছে হেরেই বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে গিয়েছিল ভারত। আইসিসি বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালেও কিউয়িদের কাছেই হেরেছে ভারত। এদিনও ভারতকে টি ২০ বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে দিল কেন উইলিয়ামসনের দলের জয়।

টি ২০ বিশ্বকাপ-সহ আইসিসি ট্রফি অধরাই থেকে গেল ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলির কাছে। সুপার টুয়েলভে পাকিস্তানের কাছে ১০ উইকেটে আর নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে ৮ উইকেটে পরাস্ত হয়েছিল ভারত। এরপর আফগানিস্তান ও স্কটল্যান্ডকে দাপটের সঙ্গে হারালেও তা সেমিফাইনালে ওঠার পক্ষে যথেষ্ট ছিল না। বিশ্বকাপ শুরুর আগে অবশ্য অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে প্রস্তুতি ম্যাচে ভারত জয় পায়।

ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়াই গ্রুপ ১ থেকে সেমিফাইনালে পৌঁছে গিয়েছে। নামিবিয়া ম্যাচের আগে আজ সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন বোলিং কোচ ভরত অরুণ। তাঁকে প্রশ্ন করা হয় আইপিএল ও বিশ্বকাপের মধ্যে কয়েকদিনের বিরতি পেলে তা কি দলের পক্ষে ভালো হতো? সেই ব্যাপারে সম্মতি দিয়ে ভরত অরুণ বলেন, টানা ছয় মাস ধরে ক্রিকেট খেলা সহজ কাজ নয়।

ক্রিকেটাররা বাড়িও যেতে পারেননি। আইপিএল করোনার কারণে স্থগিত হওয়ার পর ক্রিকেটাররা কয়েকদিনের জন্য বাড়ি গিয়েছিলেন। কিন্তু টানা ছয় মাস ধরে তাঁরা জৈব সুরক্ষা বলয়ে রয়েছেন। এই ক্লান্তি বা ধকল আইপিএল ও টি ২০ বিশ্বকাপের মধ্যে শর্ট গ্যাপ পেলে এড়ানো যেত বলেই মনে করেন অরুণ।

এবারের বিশ্বকাপে দেখা টস গুরুত্বপূর্ণ ফ্যাক্টর হয়ে উঠেছে। টস জিতে রান তাড়া করার সিদ্ধান্ত নিয়ে লাভবান হয়েছে সিংহভাগ দল। যদিও বিশ্বকাপের মতো টুর্নামেন্টে টস ফ্যাক্টর হওয়া উচিত নয় বলেই মত ভারতীয় দলের বোলিং কোচের। তাঁর কথায়, বিশ্বকাপে টস খুব, খুব গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে। কিন্তু আমি মনে করি এমন টুর্নামেন্টে টস ম্যাচের ভাগ্য নির্ধারণ করে দিচ্ছে, সেটা হওয়া উচিত নয়। কিন্তু চলতি বিশ্বকাপে টস থেকে আনফেয়ার অ্যাডভান্টেজ পেয়েছে বিভিন্ন দল। প্রথম ও দ্বিতীয় ইনিংসের ব্যাটিংয়ে বিশাল ফারাক লক্ষ্য করা গিয়েছে। টি ২০-র মতো ছোটো ফরম্যাটে এটা কাম্য নয়।

দল নির্বাচন নিয়েও প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে ভারতের ব্যর্থতার পর। যুজবেন্দ্র চাহালের অনুপস্থিতি দলের উপর প্রভাব ফেলেছিল কিনা সে নিয়ে প্রশ্ন করা হয় অরুণকে। দল নিয়ে অসন্তোষ তাঁর উত্তরেই স্পষ্ট। ভরত অরুণ বলেন, এ ব্যাপারে আমি বেশি কিছু বলতে চাই না। দল নির্বাচকরাই ঠিক করেন। আমরা যে দল পাই সেই অনুযায়ীই খেলতে হয়। ভারত ছিটকে যাওয়ায় কালকের ম্যাচে বিরাট কোহলিদের প্রথম একাদশে দেখা যেতে পারে এমন ক্রিকেটারদের যাঁরা এখনও এবারের বিশ্বকাপে খেলেননি। শেষ ম্যাচে বিরাটও নেতৃত্ব দেবেন কিনা তা নিয়েও জল্পনা শুরু হয়ে গেল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here