অভিষেকের সঙ্গে দ্বৈরথের আগেই রণেভঙ্গ শুভেন্দুর, বিজেপিকে টেক্কা তৃণমূলের ! কী বললেন অভিষেক

0
145

বিকাশ সিং, কলকাতা : বীর সন্ন্যাসী বিবেকানন্দের জন্মদিনে টানটান উত্তেজনা ছিল ১২ জানুয়ারির সকাল থেকে। কিন্তু সেই উত্তেজনা মাটি হল, অভিষেক ময়দানে নামলেও শুভেন্দু এলেন না বিজেপির মিছিলে। গড়িয়াহাট থেকে রাসবিহারী অবধি মিছিল যত এগিয়েছে ততই বহর বেড়েছে মিছিলের।ফলে যে দক্ষিণ কলকাতা নিয়ে একাধিক আক্রমণ শানাচ্ছে বিজেপি শিবির। তখন এই ভিড় দেখে আশাবাদী অভিষেক ও টিম। যা দেখে অভিষেকের বক্তব্য, “আপনারা ঐক্যবদ্ধ থাকুন। রাজনীতির লড়াই আমি মাঠে বুঝে নেব। লড়াই মমতা বন্দোপাধ্যায় জিতবে। দিল্লির কাছে মমতা বন্দোপাধ্যায় মাথা নত করবে না।

স্বামী বিবেকানন্দের জন্মদিন উপলক্ষে মিছিল থেকে কার্যত শক্তি প্রদর্শন  করলেন অভিষেক বন্দোপাধ্যায়। মিছিল শেষ করে বিজেপিকে সরাসরি আক্রমণ করেন অভিষেক। অভিষেকের বক্তব্য, “ধর্মের নামে যাঁরা বিভেদ তৈরি করতে চাইছেন রাজ্যে তাদের স্বামীজীর নাম নেওয়ার অধিকার নেই।” একই সাথে অভিষেক বন্দোপাধ্যায় কটাক্ষ করে বলেন, “যাঁরা হিন্দুত্ব নিয়ে বড় বড় কথা বলেন তাঁদের মুখে কেবল শ্রীরাম আর কর্মে নাথুরাম।” উত্তর কলকাতায় সকালেই পদযাত্রা সেরে ফেলেছিল বিজেপি৷ ফলে তুল্যমূল্য বিচারে কাদের মিছিলে ভিড় বেশি তা নিয়ে অবশ্য কোনও মন্তব্য করেনি দু’পক্ষই।

অভিষেক আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রীর পাশে বসে গত বছর আমেরিকান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বিবেকানন্দ উচ্চারণ ভুল করলেও, হাততালি দিতে দেখা গিয়েছে নরেন্দ্র মোদীকে। কলকাতা শহরে বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙা হয়। সেই দলকে বাংলার মানুষ ক্ষমা করবে না।

দক্ষিণ কলকাতার গোলপার্ক থেকে হাজরা অবধি মিছিল শেষে এই বার্তা দিলেন তৃণমুল যুব কংগ্রেসের সভাপতি অভিষেক বন্দোপাধ্যায়। মিছিলে যারা পা মিলিয়েছেন তাদের স্বতঃস্ফূর্ত উপস্থিতি দেখে খুশি অভিষেক বন্দোপাধ্যায়। তিনি জানিয়েছেন, “পা মিলিয়েছেন বহু মানুষ। তেমনি আমি রাস্তায় হাঁটার সময় দেখেছি, বহু মানুষ রাস্তার দুধারে অপেক্ষা করেছেন। বাড়ির ছাদ, বারান্দা থেকে বহু মানুষ দাঁড়িয়ে থেকে আমাদের সমর্থন জানিয়েছেন।

প্রশ্ন উঠেছে কেন শুভেন্দু অধিকারী বিজেপির ‘বিবেকের ডাকে’ মিছিলে অংশ নিলেন না। কেন তিনি শুধু সিমলা স্ট্রিটে বিবেকানন্দের বাডডিতে তাঁর মূর্তিতে পুষ্পার্ঘ নিবেদন করেই চলে গেলেন? তবে কি তিনি এখনই নামতে চাইলেন না অভিষেকের সঙ্গে সম্মুখ সমরে। কে বিশি ভিড় টানেন, তা নিয়ে ছবিটা প্রকট করতে চাইলেন না।

মঙ্গলবার সকালে শ্যামাবাজারে নেতাজি মূর্তির পাদদেশে বিজেপির জমায়েত করার কথা। তারপর তা সিমলা স্ট্রিট পর্যন্ত আসবে। যার নেতৃত্বে থাকবেন বিজেপির চার প্রধান মহারথী কৈলাশ বিজয়বর্গীয়, মুকুল রায়, দিলীপ ঘোষ ও শুভেন্দু অধিকারী। কিন্তু দিলীপ ঘোষ, মুকুল রায়রা থাকলেও সেই মিছিলে শুভেন্দুর মতো নেই কৈলাশও।

বিজেপিতে যোগদানের পর এটা ছিল কলকাতায় শুভেন্দুর প্রথম কর্মসূচি। সেই কর্মসূচিতে তিনি এলেন না। তৃণমূল মনে করছে, বিজেপির মিছিলে ভিড় হবে না বলেই ভয় পেয়ে গিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী। তাই তিনি মিছিল থেকে নিজেকে বিরত থাকলেন। অভিষেক তাঁকে ভিড়ের লড়াইয়ে টেক্কা দেবেন বলেই রণেভঙ্গ দিলেন শুভেন্দু।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here